বুধবার ২২ নভেম্বর ২০১৭ || সময়- ১০:২৯ am
পাবনার সাঁথিয়ায় প্রতিমণ পেঁয়াজের দাম ১৫০ টাকা : কৃষকের মাথায় হাত
মঙ্গলবার ২৮ মার্চ ২০১৭ , ৪:০৬ pm
কৃষকের মাথায় হাত.jpg

পাবনা : পাবনার সাঁথিয়া ও বেড়া উপজেলার পেঁয়াজ চাষীরা এবার পথে বসেছেন। শিলাবৃষ্টিতে তাদের স্বপ্নের পেঁয়াজ পঁচে গছে। পঁচা পেঁয়াজ বাতাসে দুগর্ন্ধ ছড়াচ্ছে। সাঁথিয়ার বিভিন্ন হাট-বাজারে ঘুরে দেখা যায় প্রতিমণ পেঁয়াজ ১৫০ থেকে ২০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
এতে কৃষি শ্রমিকের মজুরি উঠছে না। আবার অনেক চাষি ক্রেতার অভাবে পেঁয়াজ বিক্রি করতে পারছেন না।
আজ মঙ্গলবার সকালে সাঁথিয়া-বেড়া সিঅ্যান্ডবি চতুরহাট ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিমণ পেঁয়াজ ১৫০ থেকে ২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। হাটে আসা কৃষকেরা জানান, পেঁয়াজের ক্রেতা নেই, কার কাছে বিক্রি করবো। সাঁথিয়ার আতবশুকা গ্রামের কৃষক ইসহাক ৪ মণ পেঁয়াজ বিক্রির জন্য হাটে নিয়ে এসেছেন, কিন্তু ক্রেতা না থাকায় পেঁয়াজ বিক্রি করতে পারছেন না। কিভাবে শ্রমিকের মজুরি ও পাওনাদারদের টাকা পরিশোধ করবেন এ চিন্তায় দিশেহারা। বাড়ী ফেরার খরচের টাকা তার কাছে নেই। গোপিনাথপুর গ্রামের মাহাতাব জানান, ৩ বিঘা জমিতে পিঁয়াজ আবাদ করে যে পিঁয়াজ উঠেছে তার অর্ধেকই পচা। তার থেকে বেছে বেছে ৮ মণ পিঁয়াজ নিয়ে এসেছি হাটে কিন্তু বিক্রি করতে পারছিনা। কিভাবে মহাজনের টাকা দিব।
বেড়ার মালেক জানান, সে এবছর চার বিঘা জমিতে পেঁয়াজ আবাদ করেছিল। শিলাবৃষ্টিতে তার সব পিঁয়াজ পচে যাচ্ছে, মজুত করে রাখতে পারছে না আবার বিক্রি করতে পারছে না।  
চতুরহাটের পাইকার ও আরৎদার কালাম জানান, কেনা পেঁয়াজই সে সংরক্ষণ করতে পারছে না, পচন ধরে যাচ্ছে। এই পিয়াজ ঢাকা নিয়ে বিক্রি করা যাবে কি না তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছে।
উল্লেখ্য গত ১৭ মার্চ হালকা বৃষ্টির সঙ্গে ভারী শিলাপাতে সাঁথিয়া ও বেড়া উপজেলায় প্রায় ১৪ হাজার হেক্টর জমির অর্ধেকের বেশি পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে গেছে।