বুধবার ২২ নভেম্বর ২০১৭ || সময়- ১০:৩৬ am
কফি পান করলেই বাড়বে আয়ু!
বুধবার ১৬ আগস্ট ২০১৭ , ৩:৫১ pm
কফি পান.jpg

প্রহরনিউজ, স্বাস্থ্য: কফি পানের উপকারিতা ও অপকারিতা নিয়ে বিতর্কের শেষ নাই। শহুরে জীবনে পানীয় হিসেবে কফি বেশ জনপ্রিয়। কাজের ফাঁকে লাটে কফি আর সন্ধ্যার আড্ডায় কাপুচিনো— এখন অনেকেরই জীবনের অংশ। অফিসে থাকলেই, কাজের মাঝে বারবার কফি মেশিন আপনাকে টানে? তাহলে জেনে নিন এক অদ্ভুত তথ্য৷

সাম্প্রতিক কিছু গবেষণায় নাকি উঠে এসেছে কফির থেকেই নাকি আপনার অনেক সমস্যার সমাধান হবে৷ যা আপনার আয়ু বাড়াতেও পরোক্ষভাবে সাহায্য করবে৷
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                        কয়েকটি গবেষণায় নিয়মিত কফি পানের পরামর্শ দিয়ে বলা হয়েছে, কফি খেলে আয়ু বাড়তে পারে। আর এর উদাহরণ হিসেবে ২০১৫ সালে প্রকাশিত একটি গবেষণার প্রতিবেদনে বলা হয়, কখনও কফি পান করেনি এমন ব্যক্তির চেয়ে দৈনিক ১ থেকে ৫ কাপ কফি পান করেছে এমন ব্যক্তির মৃত্যুর ঝুঁকি কম।

ডায়াবেটিক কন্ট্রোল:
বিভিন্ন হার্ট ডিজিজ আর ডায়বেটিস অনেকটা কমে যায় যদি নিয়মিত অল্প পরিমাণে কফি পান করেন। তবে মাথায় রাখবে কফিটি হতে হবে চিনি ছাড়া।

স্কিন ক্যানসারের হাত থেকে বাঁচায়:
নিয়মিত কফি পান স্কিন ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা কমিয়ে দেয়। সেইসঙ্গে দেহের অন্য অংশেও ক্যান্সারের আশঙ্কা কমায় ।

পার্কিনসন্স ডিসিজের সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়:
দিনে কয়েক কাপ কপি খেলে পার্কিনসন্স ডিসিজ হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমে যায়।

অ্যালজাইমারস হতে দেয় না:
বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই রোগটি দেখা দেয়। একটি সমীক্ষা বলছে এইসময় যদি কফি খাওয়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দেন তা হলে অ্যালঝাইমারস হওয়ার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

স্ট্রেস কমায়:
যাঁরা কাজের স্ট্রেসের কারণে রাতে ভাল করে ঘুমোতে পারেন না তারা শোয়ার আগে কিছুক্ষণ অন্তত কফির গন্ধ শুঁকুন। কফির অ্যারোমা কিন্তু নিমেষে আপনার স্ট্রেস কমিয়ে দেবে।

কোলোন সার্জারি তাড়াতাড়ি সারিয়ে তোলে:
কোলোন সার্জারি হলে পেট পরিষ্কার রাখা খুব জরুরি। রোজ কফি খেলে আপনার পেট পরিষ্কার থাকবে আর তাড়াতাড়ি সেরে উঠবেন।

আবার, দিনে তিন কাপ কফি কমাতে পারে আপনার হার্ট অ্যাটাকের সম্ভবনা৷ লন্ডনের একটি গবেষণায় জানা গিয়েছে, এক দিনে তিন থেকে পাঁচ কাপ কফি খেলে হৃদরোগ এবং স্ট্রোকের সম্ভবনা ২০ শতাংশ কমে৷ ‘ইনস্টিটিউশন ফর সায়েন্টিফিক ইনফরমেশন অন কফি’ নামের একটি জার্নালে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, যাঁরা প্রতিদিন তিন কাপ করে কফি খান তারাই সব থেকে কম হৃদরোগের শিকার৷