বুধবার ২২ নভেম্বর ২০১৭ || সময়- ১০:২৯ am
চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন নায়ক রাজ
বুধবার ২৩ আগস্ট ২০১৭ , ১২:৪৬ pm
রাজ্জাকের সমাধি.jpg

প্রহরনিউজ, মৃত্যু: চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ আবদুর রাজ্জাক। বুধবার সকাল ১০টা ২০ মিনিটে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়।

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ১৩ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন নায়ক আবদুর রাজ্জাক। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর।

গত ২৩ আগস্ট বেলা ১১টায় রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতাল থেকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) নেয়া হয় আবদুর রাজ্জাকের লাশ।

সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর এফডিসি থেকে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেয়া হয় নায়ক আবদুর রাজ্জাকের লাশ।

নায়করাজ রাজ্জাকের জন্ম ১৯৪২ সালে কলকাতায়। ১৯৬৪ সালে ঢাকায় আসেন তিনি। এর পর জড়িয়ে পড়েন চলচ্চিত্রে।

দুয়েকটা সিনেমায় ছোটখাটো চরিত্রে অভিনয় করার পর ৬৭ সালে মুক্তি পায় নায়ক হিসেবে জহির রায়হান পরিচালিত 'বেহুলা' ছবি। এতে তার বিপরীতে ছিলেন সুচন্দা। সেই থেকে শুরু।

নায়করাজ রাজ্জাক প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন 'কি যে করি' ছবিতে অভিনয় করে। এরপর আরো চারবার তিনি জাতীয় সম্মাননা ভূষিত হন।
২০১১ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে তিনি আজীবন সম্মাননা অর্জন করেন।

এছাড়া বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি (বাচসাস) পুরস্কার পেয়েছেন অসংখ্যবার।

বর্তমান সময়ে চলচ্চিত্রে খুব কমই অভিনয় করছেন নায়করাজ রাজ্জাক।

'ছুটির ঘন্টা', 'রংবাজ', 'বাবা কেন চাকর', 'নীল আকাশের নিচে', 'জীবন থেকে নেওয়া', 'পিচ ঢালা পথ', 'অশিক্ষিত', 'বড় ভালো লোক ছিল' ছবিতে অভিনয় করা রাজ্জাক। সর্বশেষ তিনি অভিনয় করেছেন ছেলে বাপ্পারাজ পরিচালিত 'কার্তুজ' ছবিতে।

রাজ্জাকের নায়ক জীবনে জন্ম হয়েছে বেশ কয়েকটি সাড়া জাগানো জুটি। রাজ্জাক-কবরী জুটির কথা আজও মানুষের মুখে মুখে ফেরে।

প্রায় অর্ধশত বছরের অভিনেতা হিসেবে রাজ্জাকের ঝুলিতে রয়েছে তিনশ'র বেশি বাংলা ও উর্দু ভাষার চলচ্চিত্র। এরমধ্যে বেশ কয়েকটিই পেয়েছে ক্লাসিকের খ্যাতি।

অভিনয়ের পাশাপাশি ছবি পরিচালনার কাজও করেছেন রাজ্জাক। ১৬টির মতো ছায়াছবি পরিচালনা করেছেন তিনি।

এছাড়া ১৯৭২ থেকে ১৯৮৯ সাল পর্যন্ত রাজ্জাক অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে রয়েছে-'স্লোগান', 'আমার জন্মভূমি', 'অতিথি', 'কে তুমি', 'স্বপ্ন দিয়ে ঘেরা', 'প্রিয়তমা', ৱপলাতক', 'ঝড়ের পাখি', 'খেলাঘর', 'চোখের জলে', 'আলোর মিছিল', 'অবাক পৃথিবী', 'ভাইবোন', 'বাঁদী থেকে বেগম', 'সাধু শয়তান', 'অনেক প্রেম অনেক জ্বালা', 'মায়ার বাঁধন', 'গুণ্ডা', 'আগুন', 'মতিমহল', 'অমর প্রেম', 'যাদুর বাঁশী', 'অগ্নিশিখা', 'বন্ধু', 'কাপুরুষ', 'সখি তুমি কার', 'নাগিন', 'আনারকলি', 'লাইলী মজনু', 'লালু ভুলু', 'স্বাক্ষর', 'দেবর ভাবী', 'রাম রহিম জন', 'আদরের বোন', 'দরবার' ও 'সতীনের সংসার' ছবিতে তিনি অভিনয় করেন।