বুধবার ২৪ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ২:২৬ am
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৪ ঘণ্টা ল্যাবরেটরি সার্ভিস উদ্বোধন
সোমবার ৩০ অক্টোবর ২০১৭ , ৭:৪৯ pm
1.jpg

ঢাকা: জরুরি প্রয়োজনে রোগীদের জীবন বাঁচাতে আজ সোমবার সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবরেটরি মেডিসিন (ক্লিনিক্যাল প্যাথলজি) বিভাগের ২৪ ঘণ্টা ল্যাবরেটরি সার্ভিস-এর প্রধান অতিথি হিসেবে শুভ উদ্বোধন করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান। আগামীকাল মঙ্গলবার ১ নভেম্বর ২০১৭ইং তারিখ থেকে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্লক সি, তয় তলা , কক্ষ নং ৩১৮ ও ৩২০-এ শুরু হবে এই মহতী সেবা কার্যক্রম। আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় ডা. মিল্টন হলে অনুষ্ঠিত ২৪ ঘণ্টা ল্যাবরেটরি সার্ভিস-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মোঃ শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়ল। সভাপতিত্ব করেন ল্যাবরেটরি মেডিসিন (ক্লিনিক্যাল প্যাথলজি) বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মোঃ কুদ্দুস উর রহমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ল্যাবরেটরি মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. এ এন নাসিমউদ্দিন আহমেদ। সূচনা বক্তব্য রাখেন ল্যাবরেটরি মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. দেবতোষ পাল।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার সবচাইতে বড় হাসপাতাল ও চিকিৎসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হলো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে ১৯০৪টি শয্যা, ৪৬০ জন ফ্যাকাল্টি মেম্বার, ৫২টি বিভাগ, ৯৫টি পোস্ট গ্রাজুয়েট কোর্স, ৪২টি অধিভুক্ত মেডিক্যাল কলেজ  ও ইনস্টিটিউট। এ বিশ্ববিদ্যালয় হতে ২২টি মেডিক্যাল কলেজে ৬২টি রেসিডেন্সী কোর্স পরিচালনা করা হচ্ছে। প্রতিদিন গড়ে বহির্বিভাগে ৮ হাজার রোগী সেবা নিচ্ছেন। শিঘ্রই আরো ১০০০ শয্যা বিশিষ্ট সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতাল চালুর কার্যক্রম এগিয়ে চলছে। আশা করছি, চলতি বছরের নভেম্বরের মধ্যেই ডে কেয়ার সেন্টার এবং ডিসেম্বরের মধ্যে সাধারণ জরুরি বিভাগ চালু হবে। দেশের রোগীদের, এমনকি বিদেশের অনেক রোগীর আস্থার চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান হলো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে আসা রোগীদের বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার রিপোর্ট বিশ্বের সব দেশের চিকিৎসকদের কাছেই গ্রহণযোগ্য। আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা পরীক্ষা-নিরীক্ষা নির্ভর উল্লেখ করে মাননীয় উপাচার্য বলেন, রোগীদের জরুরি প্রয়োজনেই ল্যাবরেটরি মেডিসিন বিভাগের ২৪ ঘণ্টা ল্যাবরেটরি সেবা চালু করা হলো। এরমাধ্যমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়সহ সমগ্র দেশের সকল বয়সের রোগীরা উপকৃত হবেন।       
অনুষ্ঠানে অন্য বক্তারা ২৪ ঘণ্টা ল্যাবরেটরি সার্ভিসকে দেশের চিকিৎসার জন্য একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ উল্লেখ করে বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবরেটরি মেডিসিন বিভাগে রক্ত, ইউরিন, স্টুল, বডি ফ্লুয়েড, টিউমার মার্কার্সসহ প্রায় ১০০ ধরণের পরীক্ষা সুবিধা চালু রয়েছে। এরমধ্যে স্টুল ফিক্যাল ফ্যাট (Fecal Fat), ইউরিন এমিনোএসিডইউরিয়া (aminoaciduria), ফেজ কনস্ট্রাস্ট (Phase Contrast),  বডি ফ্লুয়েড পোলারাইজিং (Polarizing), টিউমার মার্কাস বি টু মাইক্রোগ ব্ললিন (B2 Microglobulin), সি এ ৭২.৪ স্টমার্ক (CA-72.4 Stomach), সাইফ্রা-২১-১ লাং (Cyfra-21-1, lung) পরীক্ষাগুলো দেশের মধ্যে শুধুমাত্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবরেটরি মেডিসিন বিভাগেই হয়ে থাকে।  বক্তারা জানান, ল্যাবরেটরি মেডিসিন বিভাগে বর্তমানে সকাল ৮টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এই সেবা বিদ্যমান রয়েছে। কিন্তু এখন থেকে দিন রাত ২৪ ঘণ্টাই এসেবা চালু থাকবে। এই জরুরি সেবা চালু হওয়ায় দ্রæত রোগ নির্ণয়ের পাশাপাশি দ্রæত চিকিৎসাসেবাও দেয়া সম্ভব হবে। এতে করে অনেক মানুষের জীবন বাঁচানো সম্ভব হবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে কয়েকটি জরুরি বিভাগ চালু রয়েছে। আগামীতে সাধারণ জরুরি বিভাগ চালুর কার্যক্রম চলছে। সে লক্ষ্যকে সামনে রেখেই এই জরুরি সেবা চালু হচ্ছে। স্যাম্পল জমা দেয়ার ২ ঘণ্টার মধ্যেই জরুরি ভিত্তিতে রিপোর্ট দেয়া সম্ভব হবে। এর ফলে জরুরি ভিত্তিতে রোগ নির্ণয়ের পর দ্রæত চিকিৎসা প্রদান করা সম্ভব হবে বিধায় অনেক মানুষ বেঁচে যাবে।  ঢাকা শহরের বিভিন্ন জায়গা থেকে অনেক রোগী প্রতিদিন আসে এবং তাঁরা এই সেবার মাধ্যমে উপকৃত হবে। প্রকৃতপক্ষে, এ সুবিধা ঢাকাসহ সমগ্র দেশের রোগীরা নিতে পারবেন।