মঙ্গলবার ২১ নভেম্বর ২০১৭ || সময়- ৬:৫১ pm
আজ শহীদ নূর হোসেন দিবস
শুক্রবার ১০ নভেম্বর ২০১৭ , ৮:১১ pm
nur_hossen_576x461

প্রহরনিউজ, মৃত্যু: আজ ১০ নভেম্বর। শহীদ নূর হোসেন দিবস। বাংলাদেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে আন্দোলন-সংগ্রামের এক অবিস্মরণীয় দিন আজ। ১৯৮৭ সালের আজকের দিনে তৎকালীন স্বৈরশাসক এরশাদের বিরুদ্ধে বুকে পিঠে ‘গণতন্ত্র মুক্তি পাক, স্বৈরাচার নিপাত যাক’ স্লোগান ধারণ করে শহীদ নূর হোসেনের মহান আত্মত্যাগের এই দিবসটি বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ইতিহাসে একটি বিরল ঘটনা।

মিছিলটি রাজধানীর জিরো পয়েন্ট এলাকায় পৌঁছলে পুলিশ গুলি চালায়। গুলিতে নূর হোসেন ছাড়াও যুবলীগ নেতা নূরুল হুদা বাবু ও ক্ষেতমজুর নেতা আমিনুল হুদা টিটো মারা যান।
দিবসটি স্মরণে জিরো পয়েন্টে স্থাপিত নূর হোসেন চত্বরে আজ সকালে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করবে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক দল। এদিকে দিবসটি উপলক্ষে পৃথক পৃথক বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।
রাষ্ট্রপতি তাঁর বাণীতে বলেন, ‘আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি বাংলাদেশের মাটিতে নূর হোসেনের মতো সাহসী মানুষরা যত দিন বেঁচে থাকবে, তত দিন গণতন্ত্র বাধাগ্রস্ত হবে না। ‘
প্রধানমন্ত্রী তাঁর বাণীতে বলেন, ‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ১০ নভেম্বর একটি অবিস্মরণীয় দিন। ১৯৮৭ সালের এই দিনে যুবলীগ নেতা নূর হোসেনের রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল ঢাকার রাজপথ। তাঁর এই আত্মত্যাগ তৎকালীন স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে গণতন্ত্রকামী মানুষের আন্দোলনকে বেগবান করে। ‘
বাণীতে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘গণতন্ত্রের দাবিতে সোচ্চার নূর হোসেনের কণ্ঠকে স্তব্ধ করে দিতে চেয়েছিল স্বৈরশাসকের বন্দুক।

দিবসটি উপলক্ষে প্রতিবছরের মতো এবারও আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। আজ সকাল ৮টায় রাজধানীর গুলিস্তানে শহীদ নূর হোসেন স্কয়ারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন এবং তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।