মঙ্গলবার ২১ নভেম্বর ২০১৭ || সময়- ৬:৫০ pm
পাথরঘাটায় বাল্যবিয়ের কারণে ৪৫ ছাত্রীর জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় অনুপস্থিত
শুক্রবার ১০ নভেম্বর ২০১৭ , ৭:৪৩ pm
Childhood_576x356

প্রহরনিউজ, পাথরঘাটা: বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলায় বাল্যবিয়ের কারণে ৪৫ ছাত্রী জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় অনুপস্থিত রয়েছে। পরীক্ষায় মোট ৫২ ছাত্রী অনুপস্থিত। ৭ জন অসুস্থ ও দারিদ্র্যের কারণে পরীক্ষায় অনুপস্থিত বলে অভিভাবক, শিক্ষক ও সহপাঠীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তথ্যমতে, এইচকেবি নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তিন শ্রেণিতে ১২ জন ছাত্রী বিবাহিত। একই সঙ্গে তাফালবাড়িয়া দাখিল মাদ্রাসায় বাল্যবিবাহ হয়েছে ১৩ জন ছাত্রী ও ১ ছাত্রের। তবে বাস্তবে এই সংখ্যা আরও বেশি।

উপজেলার জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষাকেন্দ্রের প্রধানেরা জানিয়েছেন, পাথরঘাটায় জেএসসির তিনটি ও জেডিসির দুটি পরীক্ষাকেন্দ্রে মোট পরীক্ষার্থী ২ হাজার ৮৮৫ জন। এর মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে ২ হাজার ৭৮৯। দুই পরীক্ষায় ৯৬ জন ছাত্রছাত্রী অনুপস্থিত রয়েছে। এর মধ্যে ৪৪ জন ছাত্র ও ৫২ জন ছাত্রী। কালমেঘা নিম্নমাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম কবির বলেন, এই বিদ্যালয় থেকে ১৫ জন ছাত্রী জেএসসির ফরম পূরণ করেছে। এর মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে ৭ জন। অপর ৮ জনের মধ্যে ৫ জনের বাল্যবিবাহ হয়েছে এবং ৩ জনের অভিভাবকদের ধারণা, তাঁদের মেয়ে বড় হয়েছে, তাই বিয়ে দেবেন।

হাড়িটানা আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উৎপল কুমার মিত্র বলেন, শ্রেণিকক্ষে বাল্যবিবাহে শারীরিক ও মানসিক ক্ষতিকর দিক তুলে ধরে ছাত্রছাত্রীদের ধারণা দেওয়া হয়। পাশাপাশি বিভিন্ন দিবস ও সংস্থার আয়োজনে সচেতনতামূলক সভা করা হয়। এরপরও প্রতিনিয়ত বাল্যবিবাহ হচ্ছে। এই বিদ্যালয়ে অন্তত ২৫ জন ছাত্রী রয়েছে, যাদের বাল্যবিবাহ দেওয়া হয়েছে। তবে এ ঘটনায় দারিদ্র্যের পাশাপাশি বখাটের উৎপাত কম নয়।

এ ব্যাপারে পাথরঘাটার ইউএনও বলেন, বিভিন্ন সভা-সমাবেশে প্রতিনিয়ত বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে সচেতন করা হচ্ছে। এ ছাড়া বাল্যবিবাহের খবর পেলে দ্রুত প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।