রবিবার ২১ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ১:৪৪ am
৩ তালাক নিয়ে ভারতের সংসদে বিল পাস
শুক্রবার ২৯ ডিসেম্বর ২০১৭ , ১১:২৪ am
ভারতের সংসদে বিল পাশ

প্রহরনিউজ, নারী: মুসলিম নারীদের তাৎক্ষণিক তালাকের বিরুদ্ধে ভারতীয় সংসদে বিল পেশ করেছেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। লোকসভায় এ বিল পাস হওয়ার পর দিনটিকে তিনি 'ঐতিহাসিক' বলে অভিহিত করেছেন।
এদিকে, তালাক নিয়ে নয়া বিলের তীব্র বিরোধিতা করেছেন অল ইন্ডিয়া মজলিশ-ই ইত্তেহাদুল মুসলেমিন প্রধান ব্যারিস্টার আসাদউদ্দিন ওয়াইসি এমপি।
তিনি বলেন, সংসদে তালাক ইস্যুতে আইন তৈরি করার কোনো অধিকার নেই কারণ ওই বিলে সংবিধানের মৌলিক অধিকার হরণ হবে। এটা সংবিধানের ১৫ অনুচ্ছেদের লঙ্ঘন।
তার মতে, তাৎক্ষণিক তালাক নিয়ে সংসদে বিল পাশ করার আগে মানুষের মধ্যে ওই ইস্যুতে বিতর্ক হওয়া প্রয়োজন। নারীদের অধিকার রক্ষায় আগে থেকেই প্রয়োজনীয় আইন থাকায় নয়া আইন আনার কোনো প্রয়োজন নেই। এ ধরণের আইন আনা হলে তা মুসলিম নারীদের প্রতি অবিচার করা হবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।
আসাদউদ্দিন ওয়াসি বলেন, এটা কী করে সম্ভব যে, স্বামী কারাগারে থাকবে এবং ভাতা/খোরপোশও দিতে থাকবে? দেশে ২০ লাখ এমন নারী আছেন যাদের স্বামীরা তাদের পরিত্যাগ করেছেন এবং তারা মুসলিম নন, তাদের জন্যও আইন তৈরি করা হোক।
এ প্রসঙ্গে আজ সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেন, ‘তাৎক্ষণিক তালাক বিষয়ে পার্লামেন্টে আইন এনে মুসলিমদের সম্পর্কে, শরীয়া সম্পর্কে সংযোজন করার কোনো অধিকার কেন্দ্রীয় সরকারে নেই। কেননা ভারত ধর্মনিরপেক্ষ দেশ। যেকোনো ধর্মীয় সম্প্রদায় তারা তাদের নিজস্ব পদ্ধতিতে চলার অধিকার রাখে এবং সংবিধান সেই অধিকারকে সুনিশ্চিত করেছে। তা সত্ত্বেও কেবল সামান্য সংখ্যক তালাকপ্রাপ্ত নারীদের নিয়ে পার্লামেন্টে আজ যে বিল পাশ করা হলো, ওই বিলের কোনো বাস্তব ভিত্তি নেই এবং তা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক। কোনো পুরুষ মানুষ তাৎক্ষণিক তালাক দিলে তাকে যদি কারাগারে যেতে হয় এবং তাকেই ওই নারীর খোরপোষের তাহলে তা একইসঙ্গে দুটি শাস্তির সমান বলে বিবেচিত হবে।’