বুধবার ২৪ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ২:৩৮ am
বর্তমান মুসলিম মিল্লাতের সংকট থেকে উত্তরণের একমাত্র পথ নেক আমল: ছারছীনার পীর
শুক্রবার ৫ জানুয়ারী ২০১৮ , ৯:৩১ pm
IMAG0152

মো. আবদুর রহমান, কামারখোলা থেকে: আমীরে হিযবুল্লাহ, মুজাদ্দিদে যামান, কুতুবুল আলম ছারছীনার পীর ছাহেব আলহাজ্ব হযরত মাওলানা শাহ্ মোহাম্মদ মোহেব্বুল্লাহ (মা. জি.আ.) বলেছেন- আমাদের এই দেশে অসংখ্য আওলিয়ায়ে কেরামগণ আগমনের কারণে ধন্য হয়েছে। হযরত শাহ্ জালাল (র.), শাহ্ পরান (র.), হযরত কারামত আলী জৈনপুরী (র.), হযরত খানজাহান আলী (র.), হযরত শাহ্ সুলতান বলখী মাহী ছাওয়ার (র.), কুতুবুল আলম আল্লামা শাহ্ সূফী নেছার উদ্দিন আহমদ (র.), মুজাদ্দিদে যামান শাহ্ সূফী আবু জাফর মোহাম্মদ ছালেহ (র.) এদের ন্যায় হক্কানী পীর মাশায়েখদের আগমন যদি না হতো তাহলে এদেশের মুসলমানদের করুণ অবস্থা হতো। বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের যে আলাদা সুনাম-সুখ্যাতি রয়েছে এর জন্য আওলিয়ায়ে কেরামদের অবদানই মূখ্য। তারা জাগতিক কোন যশ-খ্যাতি বা ক্ষমতা লাভের জন্য নয় বরং আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য এবং আমলহারা, সঠিক পথহারা মানুষের সঠিক পথের দিশা দিতে জীবন উৎসর্গ করে থাকেন। মূলত হক্কানী পীর মাশায়েখদের কারণেই এ দেশের মানুষ ইসলামের সঠিক রূপরেখা চিনতে, জানতে ও বুঝতে পেরেছে। আর তাদের দ্বারাই ইসলামের প্রকৃত খেদমত অতীতে যেমন হয়েছে, বর্তমানেও হচ্ছে এবং ভবিষ্যতেও হবে ইনশাআল্লাহ। তাই প্রতিটি মুসলমানের আমল করে ঈমানকে মজবুত করতে হবে। আর তা হতে হবে নেক আমল, বদ আমল নয়। সুতরাং বর্তমান মুসলিম মিল্লাতের সংকট থেকে উত্তরণের একমাত্র পথ নেক আমল।
গতকাল মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর উপজেলাধীন কামারখোলা খানকায়ে ছালেহিয়া কমপ্লেক্সের দুইদিনব্যাপি ঈছালে ছওয়াব মাহফিলের শেষদিন আখেরী মুনাজাত পূর্ব আলোচনায় হযরত পীর ছাহেব কেবলা একথা বলেন।
দুইদিনব্যাপি মাহফিলে ইসলামের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর আলোচনা করেন- হযরত পীর ছাহেব কেবলার বড় ছাহেবজাদা ও ছারছীনা দারুচ্ছুন্নাত জামেয়া-এ নেছারিয়া দ্বিনীয়ার রঈস আলহাজ্ব হযরত মাওলানা শাহ আবু নছর নেছারুদ্দীন আহমদ হুসাইন, বাংলাদেশ জমইয়তে হিযবুল্লাহর নায়েবে আমীর আলহাজ্ব মাওলানা মির্জা নূরুর রহমান বেগ, ছারছীনা দারুচ্ছুন্নাত জামেয়া-এ নেছারিয়া দ্বিনীয়ার মুদীর মাওঃ মাহমুদুম মুনীর হামীম, ছারছীনা দারুচ্ছুন্নাত আলিয়া মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওঃ রুহুল আমিন আফসারী, আরবী প্রভাষক হাফেজ মাওঃ বোরহানউদ্দিন ছালেহী।
এাহফিলে অন্যান্যেও মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- খানকায়ে ছালেহিয়া কমপ্লেক্সেও সহ সভাপতি আলহাজ্ব আবদুস সত্তার ঢালী, বাংলাদেশ জমইয়তে হিযবুল্লাহর নাজেমে আ’লা ও ছারছীনা দারুচ্ছুন্নাত আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ড. সাইয়্যেদ মুহাঃ শরাফত আলী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সহকারী অধ্যপক হাফেজ মাওঃ মোঃ রুহুল আমিন, বাংলাদেশ অতিরিক্ত নাজেমে আ’লা মাওঃ আলী আকবার, ইউনাইটেড ঢাকা জমইয়তে হিযবুল্লাহর সভাপতি জজ ইসমাইল মিঞা, হযরত পীর ছাহেব কেবলার ছোট ছাহেবজাদা আলহাজ্ব শাহ্ আবু বকর মোহাম্মদ ছালেহ নেছারুল্লাহ সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধীগন, প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা ও গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ প্রমূখ।