সোমবার ২২ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ১:০১ pm
লন্ডনে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে নৈশভোজে গিয়ে চামচ চুরির অভিযোগে জরিমানা সাংবাদিকের!
বুধবার ১০ জানুয়ারী ২০১৮ , ২:০০ pm
Chief-Minister_288x210

প্রহরনিউজ, কলকাতা: তাঁরা প্রত্যেকেই নামী সাংবাদিক৷ কেউ কেউ কোনও বড় সংবাদমাধ্যমের সিনিয়র এডিটরও৷ কিন্তু যে যত বড় ব্যক্তিই হন না কেন, স্বভাব তো আর সহজে চলে যায় না৷ বড় মানুষ হয়েও নিজেদের নীচু মানসিকতা এবং কাজকর্মের একটা নিদর্শন তাঁরা সব জায়গাতেই দিয়ে আসেন৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্প্রতি লন্ডন সফরে গিয়েছিলেন৷ সেখানে বাংলার এবং সংবাদমাধ্যমের মুখ পোড়ালেন এক ‘সিনিয়র’ সাংবাদিক৷ তাঁর বিরুদ্ধে এক হোটেলে নৈশভোজে রূপোর চামচ চুরি অভিযোগ উঠেছে!

এই চুরির দায় অভিযুক্ত সাংবাদিকের অবশ্য সেসময় ৫০ পাউন্ড জরিমানাও করে হোটেল কর্তৃপক্ষ ৷ অভিযুক্ত প্রথমসারির এক বাংলা সংবাদপত্রের সিনিয়র সাংবাদিক৷ এই ‘চামচ চোর’ অবশ্য এই প্রথমবার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কোনও সফরে যাননি৷ তিনি মুখ্যমন্ত্রীর নিয়মিত ‘সফরসঙ্গী’ বলেই জানা যাচ্ছে৷ আউটলুকে এই খবর প্রকাশিত হতেই রীতিমতো হইচই পড়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়৷

গত বছর ১২ নভেম্বর লন্ডন সফরে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সফরসঙ্গী হয়েছিলেন রাজ্যের কয়েকজন মন্ত্রী এবং বেশ কয়েকজন সাংবাদিকও। লন্ডনে তাজ গ্রুপের হোটেল সেন্ট জেমস কোর্টে এক শিল্পপতি মুখ্যমন্ত্রীর সম্মানে নৈশভোজের আয়োজন করেন।মুখ্যমন্ত্রী ও তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্যদের পাশাপাশি সাংবাদিকরাও সেখানে আমন্ত্রিত ছিলেন। নৈশভোজের সমস্ত ব্যবস্থাই ছিল রাজকীয়৷ ডিনারে ছিল রূপোর চামচও৷ যা দেখে হয়তো আর লোভ সামলাতে পারেননি ওই  অভিযুক্ত সাংবাদিক৷ খাবার পর চামচগুলো সঙ্গে করে নিয়ে যাওয়ার লোভ সামলাতে না পেরে, হাত সাফাইয়ের কাজটা ভালমতোই সারেন তিনি৷ যদিও দুঃখের বিষয় পুরো ব্যাপারটাই সিসিটিভি-র নজর এড়ায়নি৷ চামচ চোরকে ধরতে বিশেষ সময় লাগেনি হোটেল কর্তৃপক্ষের৷ সঙ্গে সঙ্গেই ৫০ পাউন্ড জরিমানা করা হয় অভিযুক্তের ৷ কারণ প্রথমে হোটেলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, যিনি নিয়েছেন তিনি যেন অবিলম্বে ফেরত দিয়ে দেন চামচগুলি৷ নাহলে পুলিশের দ্বারস্থ হবেন তাঁরা৷ এই শুনে আর চোর পালায় কী করে বলুন! নির্লজ্জের মত চামচ ফেরত দিয়ে দিতে বাধ্য হন তিনি৷ কিন্তু প্রথমে ফেরত না দেওয়াতে তাঁর জরিমানা করা হয়৷