সোমবার ২২ জানুয়ারী ২০১৮ || সময়- ১২:৫৭ pm
১৬ জানুয়ারি ঘোষণার আগে কেউ প্রার্থী নন: ওবায়দুল কাদের
বৃহস্পতিবার ১১ জানুয়ারী ২০১৮ , ২:৪৩ pm
ওবায়দুল কাদের

প্রহরনিউজ, রাজনীতি: ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনডিসি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ঘোষণা করবে আগামী ১৬ জানুয়ারি। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড এই ঘোষণা দেবে। বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এই তথ্য জানান। ধানমণ্ডিতে দলের সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

 
সংবাদ সম্মেলনে কাদের বলেন, ‘প্রার্থী ঘোষণার আগে কেউ প্রার্থী নন। অনেকে নিজের মতো করে দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছেন। এতে প্রমাণিত হয় না যে প্রার্থী নির্বাচন হয়ে গেছে। তবে আতিকুল ইসলাম দলের সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছেন। সে সময় শেখ হাসিনা বলেছেন, কাজ করো। সিদ্ধান্ত পরে।’

এর আগেও ঢাকা উত্তর সিটি করেপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ রাজনীতিকের পরিবর্তে একজন ব্যবসায়ীকে নির্বাচিত করা হয়েছিল। এবারও যারা আলোচনায় রয়েছেন তারা ব্যবসায়ী। আওয়ামী লীগ আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে ক্রমশ ব্যবসায়ীদের দিকে ঝুঁকছে কিনা- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল বলেন, ‘দলের প্রার্থী, দলীয় নেতা আর নির্বাচন এটার মধ্যে পার্থক্য আছে। এটা রাজনৈতিক স্ট্র্যাটেজি। স্ট্র্যাটেজিক এলায়েন্স। নির্বাচনে স্ট্র্যাটেজিক এলায়েন্স হয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘একজন রাজনীতিবিদ কি ব্যবসা করতে পারেন না? তারা চাঁদাবাজি করে খাবেন?’

আরেকটি ওয়ান-ইলেভেন হওয়ার আশঙ্কা আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ওয়ান ইলেভেন থেকে আমরা শিক্ষা নিয়েছি, কিন্তু বিএনপি নেয়নি। সে কারণে ভয় আছে। আশঙ্কা আছে। বিএনপি তার বর্তমান অবস্থা জেনে গেছে। নির্বাচনের আগেই সারা দেশের আওয়ামী লীগের জোয়ার দেখে বিএনপি বুঝে গেঝে যে আগামী নির্বাচনে তাদের পরিণতি কী। ভোট পাওয়ার মতো কোনও কাজ করেনি। সে কারণে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার চেষ্টা করবে বিএনপি। আওয়ামী লীগ বিএনপির সেই দুরভিসন্ধি বাস্তবায়ন করতে দেবে না।’

নিজেদের দল এবং সরকারের চার বছর নিয়ে দলের ভেতরে কোনও সংকট বা ত্রুটি দেখেন কি না এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দলের ভেতরে ছোটখাটো সমস্যা থাকতেই পারে। সেকারণে কোথাও কোথাও সম্মেলন হয়নি। তবে দলকে আধুনিক এবং মাঠ সুসংগঠিত করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই আগামী নির্বাচনে অংশ নেবো। ইতোমধ্যে আমাদের টিম নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রত্যেকের সাংগঠনিক এলাকায় তারা টিম ওয়ার্ক করে সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধান নেবে।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, আবদুর রহমান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক আহমদ হোসেন, এনামুল হক শামীম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক  দেলোয়ার হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সবুর, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাঁপা, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আক্তার, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা,উপ প্রচার আমিনুল ইসলাম, উপ দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।