শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ || সময়- ৯:৩৮ am
রাজশাহীতে এসএসসির গণিত প্রশ্নও ফাঁস, দুই ছাত্র-ছাত্রী আটক!
শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ , ৯:৪২ pm
Students_432x296

প্রহরনিউজ, ঢাকা: এসএসসি পরীক্ষার গণিত প্রশ্ন ফাঁস হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে শনিবার রাজশাহীতে এক কলেজছাত্রী ও সিলেটে এক কলেজছাত্রকে আটক করেছে পুলিশ। তাঁদের দুজনের মুঠোফোনে গণিত পরীক্ষার প্রশ্ন পাওয়া গেছে। ওই প্রশ্নের সঙ্গে আজ অনুষ্ঠিত হওয়া গণিত পরীক্ষার প্রশ্ন পুরোপুরি মিলে গেছে।

শনিবার সকালে পরীক্ষা শুরুর আগে রাজশাহী নগরীর সরকারি পিএন গার্লস হাইস্কুলের সামনে থেকে অভিভাবকরা রাজশাহী সিটি কলেজের গণিত বিভাগের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ছাত্রী রাবিয়া ইসলাম রিয়াকে আটক করে পুলিশে দেন। রিয়ার বাড়ি নগরীর শাহমখদুম থানাধীন সন্তোষপুর এলাকায়।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, পরীক্ষা শুরুর আগে মুঠোফোনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক থেকে গণিতের একটি প্রশ্ন নামিয়ে পরীক্ষার্থীদের দেখাচ্ছিলেন রিয়া। এরপর তিনি অন্নপূর্ণা কম্পিউটারের দোকানে প্রশ্নটি প্রিন্ট করতে যান। বিষয়টি টের পেয়ে ওই দোকানের মালিকের সহযোগিতায় কৌশলে ওই ছাত্রীকে আটকে রেখে পুলিশকে খবর দেন অভিভাকরা। পরে পুলিশ গিয়ে তাঁকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমান উল্লাহ বলেন, পরীক্ষা শুরুর আগে প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় রিয়া নামের এক কলেজছাত্রীকে অভিভাবকরা আটক করে থানায় খবর দিলে তাকে থানায় আনা হয়। পরীক্ষা শেষে যাচাই-বাছাই করে ওই কলেজছাত্রীর ফেসবুকের মেসেঞ্জারে পাওয়া প্রশ্নের সঙ্গে আজ অনুষ্ঠিত গণিত পরীক্ষার প্রশ্নের হুবহু মিল পাওয়া গেছে।

ওসি বলেন, ওই কলেজছাত্রীর মুঠোফোনে পাওয়া প্রশ্নের সঙ্গে গণিত পরীক্ষার প্রশ্নের মিল পাওয়া গেছে। ৩০টি প্রশ্নের সবই মিল রয়েছে। তাঁর এক ফেসবুক বন্ধু পরীক্ষা শুরুর প্রায় পৌনে এক ঘণ্টা আগে প্রশ্নটি ম্যাসেঞ্জারে পাঠান বলে রিয়া পুলিশকে জানিয়েছেন। তবে বিষয়টি যাচাই-বাছাই করে দেখা হচ্ছে। রিয়ার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাঁর বন্ধুর সন্ধানে পুলিশ কাজ শুরু করেছে বলে জানান ওসি।

এদিকে আজ দুপুর ১২টার দিকে সিলেট নগরীর হাউজিং এস্টেট এলাকার আম্বরখানা বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজের সামনে থেকে কলেজছাত্র মো. দিলোয়ার হোসেনকে (১৮) আটক করে পুলিশ। দিলোয়ারের বাড়ি কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রাম উপজেলার কলিমপুর গ্রামে।

এয়ারপোর্ট থানার আম্বরখানা ফাঁড়ির ইনচার্জ দেবাশীষ দেব জানান, এসএসসি পরীক্ষাকেন্দ্র আম্বরখানা বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজের বাইরে থেকে পুলিশ মো. দিলোয়ার হোসেনকে আটক করে। এ সময় তাঁর ব্যবহৃত মুঠোফোনে গণিত ও বাংলা দ্বিতীয় পত্রের প্রশ্ন পাওয়া যায়। পরে আম্বরখানা বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ মোহাদ্দিস আহমদকে খবর দেওয়া হয়। তিনি আজকের গণিত প্রশ্নের সঙ্গে ওই ছাত্রের ফোনে পাওয়া প্রশ্ন মিলিয়ে দেখেন। এতে সব প্রশ্নের মিল পাওয়া যায়। বাংলা দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা আগেই শেষ হওয়ায় তা মিলিয়ে দেখা সম্ভব হয়নি।

আটক দিলোয়ার হোসেন সিলেট মদন মোহন কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেছে।