শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ || সময়- ৯:৩১ am
আইসিটি প্রশ্নও ফেসবুক-হোয়াটস অ্যাপে ফাঁস
রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ , ২:০৫ pm
আইসিটি প্রশ্নও

প্রহরনিউজ, শিক্ষা: চলমান এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় প্রশ্নওপত্র ফাঁসের ধারা অব্যাহত রয়েছে। প্রথম ছয়টি পরীক্ষার পর এবার সপ্তম দিনে আইসিটি পরীক্ষার প্রশ্নও ফাঁস হয়েছে। রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) অনুষ্ঠিত আইসিটি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র  পরীক্ষা শুরুর প্রায় সোয়া ১ ঘন্টা আগে হোয়াটস অ্যাপের একটি গ্রুপে পাওয়া যায়। পরে ওই প্রশ্নে সাথে অনুষ্ঠিত হওয়া প্রশ্নের হুবহু মিল পাওয়া যায়।

আইসিটি ‘ক সেট’ প্রশ্ন  প্রশ্ন রবিবার সকাল ৮টা ৫১ মিনিটে হোয়াটস অ্যাপের একটি গ্রুপে পাওয়া যায়। আর সকাল ৯টা ৩ মিনিটে ‘গ সেট’র প্রশ্নও ফাঁস হয়। এরপর সকাল ৯টার দিকে প্রশ্নগুলো ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপে দেখা যায়।

প্রশ্নফাঁস এদেশে নতুন কিছু নয়। এইচএসসি, এসএসসি, জেএসসি, জেডিসি এমনকি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নও ফাঁস হয়ে আসছে গত কয়েক বছর ধরে। যদিও শিক্ষা মন্ত্রণালয় বরাবরই ফাঁসের বিষয়টি অস্বীকার করে আসছে।

বৃহস্পতিবার প্রথম দিন বাংলা প্রথম পত্রের প্রশ্ন দিয়ে শুরু হয় ফাঁসের ধারা। বাংলা প্রথমপত্রের বহুনির্বাচনি অভীক্ষার ‘খ’ সেট প্রশ্নপত্র পরীক্ষার প্রশ্ন ও ফেসবুকে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের হুবহু মিল ছিল।  পরীক্ষা শুরুর এক ঘণ্টা আগেই তা ফেসবুকে পাওয়া যায়।

এরপর বাংলা দ্বিতীয় পত্রের ‘খ’ সেটের প্রশ্নটিও ফেসবুকে পাওয়া যায় সকাল ৯টার একটু পর। প্রশ্নটি এরপর থেকে বিভিন্ন ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে ছড়াতে থাকে।

পরের দুই পরীক্ষা ইংরেজি প্রথম পত্র ও দ্বিতীয় পত্রের প্রশ্নও পাওয়া যায় ফেসবুক ও হোয়াটস অ্যাপে।

পরীক্ষা শুরুর প্রথম দিন শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ বলেছিলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে ‘সব ধরনের পদক্ষেপ’ নেওয়া হয়েছে। প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে প্রমাণ পেলে সঙ্গে সঙ্গে পরীক্ষা বাতিল করা হবে। যদিও প্রথম তিন পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস হলেও এখনো কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি মন্ত্রণালয়। এরপর প্রশ্নফাঁসকারীকে ধরিয়ে দিলে ৫ লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়। আর এবার সে পদক্ষেপও ব্যর্থ হলো।

এ বিষয়ে কথা বলতে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তপন কুমার সরকারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।