মঙ্গলবার ২১ নভেম্বর ২০১৭ || সময়- ৬:৪৭ pm
পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর

প্রহরনিউজ, ক্যারিয়ার: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে সারা দেশে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের অফিসগুলোতে রাজস্ব খাতে শূন্য পদে ৩৩৬ জন লোকবল নিয়োগ দেওয়া হবে। এ ছাড়া ২২৪ জন পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা প্রশিক্ষণার্থী নিয়োগ দেবে একই অধিদপ্তর। অনলাইনে আবেদন করা যাবে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত।
উপসহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার পদে ১১৩ জন, ফার্মাসিস্ট পদে ২৩, প্রিন্টিং প্রেস সুপারভাইজার, স্ক্রিপ্ট রাইটার, ডিজাইনার ও কম্পিউটার অপারেটর পদে ১ জন করে, সাঁটমুদ্রাক্ষরিক-কাম-কম্পিউটার অপারেটর পদে ৪, পরিসংখ্যান সহকারী পদে ৩, উচ্চমান সহকারী পদে ১, গুদামরক্ষক পদে ৪, গাড়িচালক পদে ৯, ওয়াচম্যান পদে ২, অফিস সহায়ক (এমএলএসএস) পদে ৬৭, এমএলএসএস/নিরাপত্তা প্রহরী পদে ১০১ ও নিরাপত্তা প্রহরী পদে ৫ জন নিয়োগ দেওয়া হবে। এ ছাড়া পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা পদে ২২৪ জন নেওয়া হবে।

বিজ্ঞপ্তি ছাপা হয়েছে ২২ সেপ্টেম্বরের ইত্তেফাক পত্রিকায়। পাওয়া যাবে www.dgfp.gov.bd/site/view/notices ওয়েবলিংক এবং http://bit.ly/2jXm8hX I http://bit.ly/2huIH8S শর্টলিংকে।


আবেদনের যোগ্যতা
উপসহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার পদে আবেদনের যোগ্যতা এসএসসি। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদিত মেডিক্যাল অ্যাসিসট্যান্ট ট্রেনিং স্কুল থেকে পাস করা চিকিত্সা সহকারীদের বেলায় থাকতে হবে কমপক্ষে ৩ বছরের ডিপ্লোমা। ফার্মাসিস্ট পদে বাংলাদেশ ফার্মাসি কাউন্সিল থেকে রেজিস্ট্রেশনসহ থাকতে হবে তিন বছরের ডিপ্লোমা। প্রিন্টিং প্রেস সুপারভাইজার পদে প্রিন্টিং বিষয়ে ডিপ্লোমা বা সার্টিফিকেট থাকতে হবে। স্ক্রিপ্ট রাইটার পদে দ্বিতীয় শ্রেণিতে স্ন্নাতকসহ থাকতে হবে স্ক্রিপ রাইটিংয়ে তিন বছরের অভিজ্ঞতা। ডিজাইনার পদে কর্মাশিয়াল আর্ট বিষয়ে ডিপ্লোমাধারী হতে হবে। কম্পিউটার অপারেটর পদে বিজ্ঞানে স্নাতকসহ ডাটা এন্ট্রি কাজে দুই বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।


সাঁটমুদ্রাক্ষরিক-কাম-কম্পিউটার অপারেটর পদে আবেদনের যোগ্যতা এইচএসসি। থাকতে হবে সাঁটলিপিতে ইংরেজি ও বাংলায় প্রতি মিনিটে যথাক্রমে ৭০ ও ৪৫ শব্দ এবং কম্পিউটার ওয়ার্ড প্রসেসিং, ডাটা এন্ট্রি ও টাইপিং কাজে ইংরেজি ও বাংলায় যথাক্রমে ৩০ ও ২৫ শব্দের গতি। পরিসংখ্যান সহকারী পদে পরিসংখ্যান বিষয়সহ স্নাতক বা সমমানের ডিগ্রিসহ পরিসংখ্যান কাজে অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। স্নাতক হলেই আবেদন করা যাবে উচ্চমান সহকারী ও গুদামরক্ষক পদে। গাড়িচালক পদে অষ্টম শ্রেণি পাস এবং বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্সসহ হালকা ও ভারী গাড়ি চালনায় দক্ষ হতে হবে। ওয়াচম্যান, অফিস সহায়ক (এমএলএসএস), এমএলএসএস/ নিরাপত্তা প্রহরী এবং নিরাপত্তা প্রহরী পদে আবেদনের যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি পাস। পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা পদে শুধু মহিলারা আবেদন করতে পারবেন। যোগ্যতা এসএসসি। সব পদে ১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখ বয়স থাকতে হবে ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। তবে মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ মুক্তিযোদ্ধার পোষ্য এবং শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩২ বছর। খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি ও বান্দরবান জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবে না।


আবেদন অনলাইনে
পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে (www.dgfp.gov.bd) পাওয়া যাবে অনলাইন আবেদন ফরম। আবেদন ফরম পূরণ করে স্ক্যান করা ছবি ও স্বাক্ষর আপলোড করতে হবে। নির্ভুলভাবে আবেদন সাবমিট করার পর অ্যাপ্লিকেন্ট কপিটি ডাউনলোড বা প্রিন্ট করে সংরক্ষণ করতে হবে। আবেদন সাবমিট করার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আবেদন ফি জমা দিতে হবে।

পরীক্ষা পদ্ধতি
প্রশাসন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, অনলাইনে পাওয়া সব আবেদন যাচাই-বাছাই করে লিখিত পরীক্ষার জন্য অনলাইনে প্রবেশপত্র ইস্যু করা হবে। প্রবেশপত্র ওয়েবসাইট থেকে প্রিন্ট করে নিতে হবে। প্রার্থীর দেওয়া মোবাইল নম্বরে জানিয়ে দেওয়া হবে পরীক্ষার কেন্দ্র, স্থান ও সময়। পদ অনুসারে নেওয়া হবে লিখিত, মৌখিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষা। কম্পিউটার-বিষয়ক পদগুলোর জন্য বসতে হবে স্ট্যান্ডার্ড অ্যাপটিচুট বা ব্যবহারিক পরীক্ষায়। ড্রাইভার পদে দিতে হবে গাড়ি চালনার ব্যবহারিক পরীক্ষা। এ ছাড়া অন্য পদগুলোর জন্য লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হবে। সব পদের জন্যই ৭০ নম্বরের লিখিত ও ৩০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা হয়ে থাকে। পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা পদেও লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে প্রশিক্ষণের জন্য প্রার্থী মনোনয়ন করা হবে।


পরীক্ষার প্রস্তুতি
কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার সাইফুল ইসলাম জানান, লিখিত পরীক্ষায় বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞানের পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিষয়ক প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। ডিপ্লোমা কোর্সের পাঠ্য বই এবং ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির পাঠ্য বই থেকেই প্রায় সব প্রশ্ন করা হয়ে থাকে।


বাংলা অংশে বাংলা সাহিত্য ও ব্যাকরণের নানা বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। আসতে পারে সারাংশ, পত্র লিখন, ভাব সম্প্রসারণ বা রচনা। ইংরেজি বিষয়ে গ্রামার অংশ থেকেই বেশি প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। ট্রান্সলেশন, প্যারাগ্রাফ রাইটিং, লেটার রাইটিংও আসতে পারে। পাটিগণিত অংশে সরল, শতকরা, সুদকষা, ঐকিক নিয়ম, লসাগু-গসাগু অংশ থেকে বেশি প্রশ্ন করা হয়। প্রশ্ন আসতে পারে বীজগণিত থেকেও। সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে বাংলাদেশ বিষয়াবলি, বিষয়াবলি ও দৈনন্দিন বিজ্ঞান থেকে প্রশ্ন করা হয়ে থাকে।


ফার্মাসিস্টসহ অন্যান্য তৃতীয় শ্রেণির পদগুলোতেও পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণির বই থেকে প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। এমএলএসএসসহ চর্তুথ শ্রেণির পদের জন্য সাধারণত প্রাথমিক পর্যায়ের বই থেকে প্রশ্ন করা হয়। প্রস্তুতির জন্য প্রাথমিক পর্যায়ের বাংলা, ইংরেজি, গণিত বইগুলো পড়তে হবে।


কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা আকলিমা খাতুন জানান, পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা পদের পরীক্ষায় ৭০ নম্বরের লিখিত ও ৩০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। এর মধ্যে বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞান থেকে হয়।


বেতন-ভাতা
নিয়োগপ্রাপ্তরা ২০১৫-এর বেতন স্কেল অনুসারে বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা পাবেন। উপসহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার, ফার্মাসিস্ট, প্রিন্টিং প্রেস সুপারভাইজার ও স্ক্রিপ্ট রাইটাররা ১২৫০০-৩০২৩০ টাকা স্কেলে বেতন পাবেন। ডিজাইনার ও কম্পিউটার অপারেটর পদে ১১০০০-২৬৫৯০ টাকা এবং সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর, পরিসংখ্যান সহকারী, উচ্চমান সহকারী, গুদামরক্ষক পদে ১০২০০-২৪৬৮০ টাকা স্কেলে বেতন পাবেন। গাড়িচালক ভারী লাইসেন্সধারী ৯৭০০-২৩৪৯০ এবং হালকা লাইসেন্সধারী ৯৩০০-২২৪৯০ টাকা স্কেলে বেতন পাবেন। ওয়াচম্যান, অফিস সহায়ক (এমএলএসএস), এমএলএসএস/ নিরাপত্তা প্রহরী এবং নিরাপত্তা প্রহরী পদের বেতন হবে ৮২৫০-২০০১০ টাকা স্কেলে। পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা পদে প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা প্রশিক্ষণকালীন ভাতা এবং প্রশিক্ষণ শেষে স্থায়ী পদায়নে নির্ধারিত বেতন স্কেলে বেতন দেওয়া হবে।


যোগাযোগ
পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর, ৬ কারওয়ান বাজার, ঢাকা-১২১৫।
ওয়েবসাইট : www.dgfp.gov.bd


সূত্র : কালেরকণ্ঠ